June 21, 2021, 4:42 am

News Headline :
ফেনীতে বিএনপির বন ও পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে বৃক্ষরোপন ফেনী হার্ট ফাউন্ডেশন ও ডায়াবেটিস হাসপাতালে হুইলচেয়ার বিতরণ করেছে ফেনী ক্লাব ঢাকা শিক্ষকদের ভ্যাকসিন, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে খুলে দেয়া হোক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাগলনাইয়ায় আইনী সহায়তা ও তৃণমূল পর্যায়ে নারী নেতৃত্ব বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত ফের ফুলগাজী মুহুরী নদীর ভাঙ্গন, প্রতিবছরই বরাদ্ধ ও স্থায়ী বাঁধের মিথ্যে আশ্বাস সোনাগাজীতে প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র’র প্রদর্শনী সোনাগাজীতে কৃষক বেলাল হত্যা :খুনিদের বিচার দাবীতে মানববন্ধন সোনাগাজী পৌরসভার চলমান প্রকল্প পরিদর্শনে যুগ্ম সচিব মিজানুর রহমান উদ্বোধনের অপেক্ষায় সোনাগাজীর দৃষ্টিনন্দন নবনির্মিত মঙ্গলকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ পরশুরামে শিরীন আখতার এমপির বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ও উঠান বৈঠক
কষ্টিপাথর ও পেশাগত বিরোধে খুন করা হয় পরশুরামের ইয়াছিনকে ঃ পুলিশ সুপার

কষ্টিপাথর ও পেশাগত বিরোধে খুন করা হয় পরশুরামের ইয়াছিনকে ঃ পুলিশ সুপার

 

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ-কষ্টিপাথর বাগিয়ে নেয়া ও পেশাগত কাজের কর্তৃত্ব নিয়েই খুন করা হয় ফেনীর পরশুরামের রাজমিস্ত্রী মো. ইয়াছিনকে। গতকাল সোমবার দুপুরে ফেনীর পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী নিজ কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে রবিবার বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত পিলার নং-২১৫-১২-এস এর ৫০ গজ অভ্যন্তরে মাটির নিচ থেকে বিজিবি-বিএসএফ’র সহযোগিতায় ইয়াছিনের লাশ উদ্ধার করে আইনশৃংখলা বাহিনী। নিহত ইয়াছিন পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের মধ্যম রাঙ্গামাটিয়া এলাকার হাসান আহমেদের ছেলে।সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জানান, দীর্ঘদিন থেকে কষ্টিপাথর ও পেশাগত কিছু বিষয় নিয়ে ইয়াছিনের সাথে পরশুরাম উপজেলার মধ্যম রাঙ্গামাটিয়া গ্রামের আবুল কালামের ছেলে মো. সেলিম (৩৩) এর সাথে বিরোধ চলে আসছিলো। বিরোধের জের ধরে ১৩ এপ্রিল শাহনাজ নামের এক মহিলাকে দিয়ে ফেনী শহরের বনানী পাড়ায় একটি বাসায় ডেকে এনে ৫/৬ জনে মিলে তাকে হত্যা করে। পরে লাশ গুম করার জন্য সিএনজি চালক জামালকে নিয়ে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত পিলার নং-২১৫-১২-এস এর ৫০ গজ অভ্যন্তরে মাটি চাপা দেয়া হয়।সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাঈনুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) রবিউল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো: আতোয়ার রহমান, সহকারী পুলিশ সুপার (ডিএসবি) খালেদ হোসেন, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি এনএম নূরুজ্জামান, পরশুরাম মডেল থানার ওসি মো: শওকত হোসেন উপস্থিত ছিলেন।পুলিশ সুপার আরো জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে জিডি করার পর বিষয়টি ফেনীর গোয়েন্দা পুলিশ তদন্তকরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেলিমকে আটক করলে ঘটনার জট খুলতে থাকে। এক পর্যায়ে তার দেখানো মতে সীমান্ত এলাকা থেকে রবিবার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের উপস্থিতিতে ইয়াছিনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়।এ ঘটনায় নিহত ইয়াছিনের বড় ভাই হারুন প্রকাশ নান্টু রবিবার পরশুরাম মডেল থানায় বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত আসামী সেলিমসহ এমাম হোসেন, মোশাররফ হোসেন, কুসুম, শাহনাজ ও সিএনজি চালক জামালের নামে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এদিকে স্থানীয়রা জানায়, কয়েকমাস আগে ইয়াছিন একটি কষ্টিপাথর পেয়েছে। ওই কষ্টিপাথর বিক্রির জন্য সে সেলিমের সহযোগিতা চায় এবং কিছু টাকা সেলিমকেও দেবে বলে প্রতিশ্রæতি দেয়। গত কিছুদিন যাবত ইয়াছিন কষ্টিপাথর নিয়ে সেলিমকে কোন কিছু জানায়নি। এক পর্যায়ে সেলিম ইয়াছিনের কাছে কষ্টিপাথর অথবা কষ্টিপাথরের টাকার ভাগ চাইলে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে শাহনাজকে দিয়ে প্রেমের অভিনয় করে ইয়াছিনকে ফেনীতে এনে হত্যা করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Comments are closed.




themesba-zoom1715152249
© All rights reserved © 2020 www.nayapaigam.com
Design & Developed BY Host R Web